STOP-এর হোম পেইজ এ যান

চাষ থেকে বিনিয়োগ, তামাক শিল্পের প্রতিটি পর্যায়ে সহযোগীরা সক্রিয়

তামাক শিল্পের সহযোগীরা এই শিল্পের কর্মসূচিকে বিশ্বাসযোগ্যতা দেয় এবং নীতিনির্ধারকদের সাথে যোগাযোগ করে যারা এই শিল্প ও তার সহযোগীদের আঁতাঁত সম্পর্কে অবগত নয়।

তামাক শিল্পের সহযোগীরা—বিভিন্ন গ্রুপ, সংগঠন এবং জনগণ যারা তামাক শিল্পের পক্ষে প্রচার করে—তাদের সহজে চিহ্নিত করা সম্ভব নয়। অনেক সময় যাদের তামাক শিল্পের সাথে একেবারেই সম্পর্কহীন বলে মনে হয় আদতে তাঁরা তেমনটা নন, এছাড়া অনেক ক্ষেত্রে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের মধ্যে গোপন বোঝাপড়া থাকে, তাই নীতিনির্ধারকরা সর্বদা জানতে পারেন না যে, তারা তামাক শিল্পের সঙ্গে পরোক্ষে জড়িত এমন কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন কিনা। জনগণকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য তৈরি নীতির উপর শিল্পসংস্থার অসাধু প্রভাব ঠেকাতে তামাক শিল্প বা তাদের কোনো সহযোগী আলোচনায় উপস্থিত রয়েছে কিনা তা নীতিনির্ধারকদের সর্বদা নজরে রাখা উচিত।

এই কারণে STOP 2019 সালে একটি অনুসন্ধানযোগ্য শিল্প সহযোগী ডেটাবেস তৈরি করেছে। সাম্প্রতিক আপডেটে তামাক শিল্পের প্রায় 30টি সহযোগীকে অন্তর্ভুক্ত করে ডেটাবেসকে আগের চেয়ে আরও কার্যকরী করা হয়েছে।

তামাক শিল্পের সহযোগীরা বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে। STOP গবেষকরা এই সহযোগীদের তিনটি ক্যাটেগরিতে ভাগ করেছে: ফ্রন্ট গ্রুপ, তৃতীয় পক্ষ এবং অ্যাস্ট্রোটার্ফ গ্রুপ। এদের মধ্যে অনেক সহযোগী তামাক শিল্পের প্রভাব থেকে মুক্ত বলে মনে করা হলেও এই সংগঠনগুলি যে তামাক শিল্পের কর্মসূচির সমর্থনে প্রচার করে তার প্রমাণ মিলেছে। তামাক শিল্পের এই সহযোগীরা তামাকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের বিরুদ্ধে সমর্থন জোগাড়, তামাক সংস্থাগুলোর নতুন পণ্যের পক্ষে প্রচার, তামাক সংস্থাগুলোর তথাকথিত প্রাতিষ্ঠানিক সামাজিক দায়বদ্ধতার পক্ষে প্রচার, বা সংস্থাগুলোর পণ্য বা দৃষ্টিভঙ্গী প্রচার করার জন্য আপাতদৃষ্টিতে নিঃস্বার্থ কোনও উদ্যোগ তৃণমূলস্তরে আয়োজন করার চেষ্টা করতে পারে। এই সহযোগীদের অনেকে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান থেকে আর্থিক সাহায্য বা সমর্থন পায়।

সহযোগীরা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে রয়েছে

সম্প্রতি ডেটাবেসে যে সহযোগীদের যোগ করা হয়েছে তারা তামাক শিল্পের স্বার্থ রক্ষাকারীদের একটি সামান্য অংশের প্রতিনিধিত্ব করে, কিন্তু তারা গুরুত্বপূর্ণ যেহেতু তামাক শিল্পের সরবরাহ শৃঙ্খলএর সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলে। এমনটা দেখা গিয়েছে যে, তামাক শিল্পের তরফে কৌশলগতভাবে প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপে সহযোগীদের রাখা হয়েছে—চাষ থেকে শুরু করে খুচরা বিক্রি ও গবেষণা পর্যন্ত—যাতে ব্যাবসা এবং নীতিনির্ধারণের পরিবেশ সব রকমভাবে তামাক শিল্পের জন্য অনুকূল হয়।

উদাহরণ হিসেবে আলিয়ানসি মাসিয়ারকাট টেম্বাকাউ ইন্দোনেশিয়া (দি ইন্দোনেশিয়ান টোব্যাকো সোসাইটি অ্যালাইয়্যান্স), সংস্থাটির কথা উল্লেখ করা যেতে পারে। এটি একটি ফ্রন্ট গ্রুপ যা স্যামপোয়েরনা নামে ফিলিপ মরিস ইন্টারন্যাশনাল মালিকানাধীন একটি তামাক সংস্থা এবং শিল্পের সঙ্গে যুক্ত অন্যান্য সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছে। এই গ্রুপটি “তামাকচাষিদের স্বার্থ রক্ষার মঞ্চ” হিসেবে এবং তামাক শিল্পের সরবরাহ শৃঙ্খলের সঙ্গে যুক্ত থাকা অন্যান্যদের স্বার্থ রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। তামাক সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ, তামাকজাত পণ্যের উপর কর বৃদ্ধি সহ তামাকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের জন্য নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের বিরুদ্ধে গ্রুপটি সর্বদা সমর্থন জোগাড়ের চেষ্টায় সক্রিয়।

সম্প্রতি আরও এক সহযোগীকে যুক্ত করা হয়েছে যা উৎপাদন সহ সরবরাহ শৃঙ্খলে একাধিক পর্যায়ে প্রতিনিধিত্ব করে। দ্য টোব্যাকো ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া (ভারতের শীর্ষস্থানীয় সিগারেট প্রস্তুতকারক সংস্থা আইটিসি এবং আন্তর্জাতিক তামাক সংস্থাগুলোর সহযোগীদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত একটি ফ্রন্ট গ্রুপ) তামাকজাত পণ্যের উপর কর চাপানো এবং প্যাকেটের উপর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সতর্কবার্তা সহ বিভিন্ন ইশ্যুতে তামাকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণকারী পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সমর্থন জোগাড়ে সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছে।

সম্প্রতি যুক্ত করা হয়েছে এমন একাধিক তৃতীয় পক্ষ খুচরো বিক্রেতাদের প্রতিনিধিত্ব করে, যেমন, স্কটিশ গ্রোসার্স ফেডারেশন, অস্ট্রেলিয়ান অ্যাসোসিয়েশন অফ কনভেনিয়েন্স স্টোর এবং মাস্টার গ্রোসার্স অ্যাসোসিয়েশন। তামাক নিয়ন্ত্রণকারী একাধিক পদক্ষেপের বিরোধিতা করা সহ, দ্য স্কটিশ গ্রসার্স ফেডারেশন, যাদের কর্পোরেট সদস্যদের মধ্যে রয়েছে চারটি প্রধান সংস্থা আন্তর্জাতিক তামাক সংস্থাগুলো, তামাক সংক্রান্ত স্কটিশ প্রদর্শনী বন্ধের বিরোধিতা করেছে এবং ই-সিগারেটের বিজ্ঞাপন ও প্রচারের উপর নিয়ন্ত্রণের বিরুদ্ধে সমর্থন জোগাড়ের চেষ্টা করেছে।

একটি তৃতীয় পক্ষ যার নাম ইন্টারন্যাশনাল নেটওয়ার্ক অফ নিকোটিন কনজিউমার অর্গানাইজেশনস দাবি করে যে, তারা “কম ঝুঁকিপূর্ণ, বিকল্প নিকোটিন পণ্যর”  উপভোক্তাদের প্রতিনিধিত্ব করে এবং শিল্প নির্ধারিত “কম-ক্ষতি” -র পক্ষে প্রচার করে। সংস্থাটি আরও এক সহযোগীর কাছ থেকে সমর্থন পেয়েছে, যেটি ফিলিপ মরিস ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশনের আর্থিক সাহায্যপ্রাপ্ত ফাউন্ডেশন ফর ও স্মোক-ফ্রি ওয়ার্ল্ড, যার মধ্যে রয়েছে ওয়ার্ল্ড হেল্থ অরগানাইজেশন ফ্রেমওয়ার্ক কনভেনশন অন টোব্যাকো কন্ট্রোল (WHO FCTC) এর কনফারেন্স অফ দ্য পার্টিস-কে প্রভাবিত করার জন্য অনুদান (যেমন COP8 -তে দেখা গেছে).

যখন তারা সিদ্ধান্ত গ্রহণকারীদের সাথে যুক্ত থাকে বা জনমতকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে, তখন তারা এমন সমস্ত নীতি প্রণয়ন করার পরিস্থিতি তৈরি করে যা মানুষের পক্ষে ক্ষতিকর কিন্তু বাণিজ্যিক দিক দিয়ে শিল্পের পক্ষে লাভজনক।

সম্প্রতি ডেটাবেসে যোগ করা হয়েছে এমন অন্যান্য সহযোগীরা সেই সমস্ত স্টেকহোল্ডারদের নিশানা করে যাদের তামাক শিল্প প্রভাবিত করার চেষ্টা করে, তাঁদের মধ্যে নীতিনির্ধারকরা সহ (রয়েছেন অ্যাসিওন টেকনিকা সোশ্যাল [সোশ্যাল টেকনিক্যাল অ্যাকশন], কলম্বিয়াস্থিত), বিনিয়োগকারীরা, (যারা যুক্ত এদের সঙ্গে দ্য ফরেন ইনভেস্টরস চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, বাংলাদেশস্থিত) এবং জনগণ ও তাদের (সঙ্গে প্রেরণা ফাউন্ডেশন, ঢাকাস্থিত).

গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলিতে প্রভাব

যদিও এই সংগঠনগুলি অবস্থান, আয়তন এবং কাজের পরিধিতে আলাদা, কিন্তু তাদের মধ্যে দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মিল রয়েছে: তামাক শিল্পের সাথে আপাত যোগসূত্র এবং এই শিল্পের পণ্য বা দৃষ্টিভঙ্গীর প্রচার।

এই সহযোগীদের প্রভাব জনস্বাস্থ্যের জন্য বিশেষ ক্ষতিকর। যখন তারা সিদ্ধান্ত গ্রহণকারীদের সাথে আঁতাঁত করে বা জনমতকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে, তখন তারা এমন সমস্ত নীতি প্রণয়ন করার পরিস্থিতি তৈরি করে যা মানুষের পক্ষে ক্ষতিকর কিন্তু বাণিজ্যিক দিক দিয়ে শিল্পের পক্ষে লাভজনক। সমস্ত সরকারকে অবশ্যই তাদের জনগণের স্বাস্থ্য ও মঙ্গলের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে এবং যে দেশগুলি WHO FCTC -এর সঙ্গে যুক্ত, তারা তাদের নীতিগুলিকে শিল্প বা তার স্বার্থ রক্ষাকারীদের প্রভাব থেকে রক্ষা করতে বাধ্য। তারা যদি সহযোগীদের সঙ্গে আঁতাঁত করে তবে তা WHO FCTC -এর 5.3 অনুচ্ছেদ লঙ্ঘন করে।

তামাক শিল্পের সহযোগীদের তালিকা দীর্ঘ এবং ক্রমবর্ধমান। এই সাম্প্রতিক আপডেটগুলি থেকে স্পষ্ট যে, তামাক শিল্প কোনও দিক থেকেই তার বাণিজ্যিক অগ্রাধিকার প্রতিষ্ঠায় ও দৃষ্টিভঙ্গী প্রচারের চেষ্টায় পিছিয়ে নেই। শিল্পের প্রভাব থেকে নীতিগুলো রক্ষা করতে এবং জনস্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর একটি শিল্পকে ইতিবাচক আলোয় দেখানোর যে চেষ্টা (ইচ্ছা বা অনিচ্ছার সঙ্গে) চলছে তা ঠেকাতে, জনগণের জানা প্রয়োজন এই শিল্প কখন কীভাবে প্রভাব বিস্তার করছে।

গবেষকরা, নীতিনির্ধারকরা, সংস্থাগুলি এবং সাধারণ মানুষ এই লিঙ্কে STOP-এর শিল্প সহযোগী ডেটাবেস অনুসন্ধান ক্লিক করে জানতে পারবে কোন প্রতিষ্ঠানগুলো—যাদের মধ্যে কয়েকটি সম্পর্কে তারা ইতিমধ্যে অবগত বা যাদের সঙ্গে কাজ করেছে—তামাক শিল্পের কর্মসূচির সমর্থনে প্রচার করছে।

বিশ্বজুড়ে তামাকের ব্যবহার কমানোর চেষ্টা চলছে, এবং এই প্রচেষ্টা শুরু হয়েছে তামাকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে সবচেয়ে বড় বাধা যারা সেই তামাক শিল্প ও তার সহযোগীদের কাজকর্মের উপর আলোকপাত করার মাধ্যমে।